+91-94321 28493 bpaindia@gmail.com

Bhoye by Rupayan Acharya

Bhoye by Rupayan Acharya” from Shrutikalpa 1-1 by Amitabha Sengupta, BPA Production. Released: 2017. Genre: Audio Magazine.

ভয়ে – রূপায়ন আচার্য, পাঠ অমিতাভ সেনগুপ্ত
শ্রুতিকল্প, প্রথম বর্ষ – প্রথম সংখ্যা

4 thoughts on “Bhoye by Rupayan Acharya”

  1. story was good. story telling was also good but something shuold have to be correct in that story like the age of kush. it should be 18 not 21 because age of a h.s candidate is not more than 18 or 19 age normally. another part is after death of kush, no one beside his death body its strange part of the story. kush’s parents first heard the death news then cried alto then went for the pulse check up nd saw the death body, its not natural thing i think. delet the deep telling kush death part.. otherwise its a nice story, good suspense. i like it.

    1. Thank you for your comments. We shall send your comments to the author. Keep listening and sharing.

  2. গল্পটা শোনার জন্য এবং নিজের রায় দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ ।
    প্রথমত; গল্পে কুশের বয়স সম্পর্কে ” কুশের বয়স আসছে বৈশাখে ১৮ হবে । সবে ওর উচ্চমাধ্যামিক পরীক্ষা শেষ হয়ছে । ” এই কথাটা এবং পরে “কুশের বয়স ওই ১৭-১৮ হলেও………” এই কথাটার উল্লেখ আছে , ২১ বছর বা অন্য কোন বয়সের উল্লেখ নেই ।
    দ্বিতীয়ত; ” বাবা-দাদা-মা , দীপ চারজনই নিঃশব্দে স্ট্যাচুর মতো দাড়িয়ে দেখছে , ওই জায়গাটা , যেখানে কুশ সিঁড়ি থেকে পরেছিল । কিন্তু কী দেখছে ওরা ?” ” সত্যি অবাক করা দৃশ্য । মুখ থুবড়ে পরে আছে কুশের দেহটা আর সিঁড়ির ওই সমান জায়গাটা রক্তের তরলে ভেসে লাল হয়ে গেছে । ” এই অংশে থেকে বোঝা যাচ্ছে (১) মুখ থুবড়ে পরে থাকা দেহ দেখে পরিজনের ডাক্তারি বিচারের থেকেও অবাক হওয়াটা হয়তো অনেক বেশি স্বাভাবিক (২) সিঁড়ির ওই সমান জায়গাটা রক্তের তরলে ভেসে যাওয়ার ফলে দেহর সামনে চট করে না যেতে পারা ও দেহটি উদ্ধার না করতে পারাটাও খুব স্বাভাবিক বলে মনে হয় ।
    তৃতীয়ত; “এসে উপস্থিত হল কুশের ৫-৬ জন প্রিয়বন্ধুদের মধ্যে একজন বন্ধু , দীপ “, কুশের প্রিয়বন্ধুদের মধ্যে একজন বন্ধু দীপ ; ফলে দীপের কথা কুশের পরিবারের পক্ষে বিশ্বাস করার জন্য যথেষ্ট ছিল, তাই কুশের মা কথাটা শোনার সাথে সাথে কেঁদে ফেলে এবং বাবা ও দাদা ওপরে উঠে যায় । তাছাড়াও দীপের ও বয়স ১৮ ,তাই জীবিত ও মৃতের মধ্য ফারাক টি বোঝার ক্ষমতা দীপের আছে , তাই দীপ কুশের মৃত্যুর ব্যাপারে নিশ্চিত হয়েই পরিবারের কাছে সংবাদটি জানায় ।
    আশা করি সকল স্বাভাবিকত্বের ব্যাখ্যা করতে পারলাম, স্রোতার কাছে অনুরোধ যে সে যেন গল্পটি আরও একবার শোনে এবং গল্প সম্বন্ধে পুনরায় নিজের অভিমত জানায় ।
    ধন্যবাদ ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *